চেয়ারম্যানের নির্দেশ ছাড়া চুল কাটা যাবে না, ভোলায় বিজ্ঞপ্তি জারি

তার নির্দেশের বাইরে অন্য স্টাইলে চুল কা’টলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার বিজ্ঞপ্তি জা’রি করেছেন ভোলার চরফ্যাশনের

জাহানপুর ইউপি চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন হাওলাদার। বি’জ্ঞপ্তি জারি করে ইউনিয়নের সর্বত্র লাগিয়ে দিয়েছেন তিনি। বিষয়টির প্রতি’বাদ করায় এক কিশোরকে

মা’রধ’র করার অভি’যোগ উ’ঠেছে চেয়ারম্যানের ছেলে তুষারের বি’রু’দ্ধে। বিজ্ঞপ্তিতে চেয়ারম্যান উল্লেখ করেন, সুন্নতি কা’টিং, ডিফেন্স/আর্মি কা’টিং ছাড়া অন্য কোনও

স্টাইলে চুল কা’টলে সেলুন মালিক ও নরসুন্দরদের বি’রু’দ্ধে আ’ইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গত ২৫ অক্টোবর এই বিজ্ঞপ্তি জারি করেন ইউপি চেয়ারম্যান। এরপর থেকে

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে আলোচনা-সমা’লোচনা’র ঝড়। গু’ঞ্জন চলছে বিভিন্ন সচে’তন মহলে। গত ইউপি নির্বাচনে

প্রথমবারের মতো নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন নাজিম।বাংলাদেশ সংবিধানের ৩১ ও ৩২ ধারা ল’ঙ্ঘ’ন করে মানুষের জীবন ও ব্যক্তিস্বাধীনতার অধিকার ক্ষু’ণ্ন করে এমন বিজ্ঞপ্তি জা’রি করায় ক্ষু’ব্ধ স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান নাজিম বলেন, ‘আমি স্থানীয় মুসলিমদের সঙ্গে কথা বলে ২৫ অক্টোবর নো’টিশ জা’রি করেছি।

তবে কতটুকু সঠিক করেছি বা ভু’ল করেছি আমি দ্বি’ধা-দ্ব’ন্দ্বে আছি এখন।’ কিশোরকে মা’রধ’রের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে তুষারের সঙ্গে স্থানীয় জসিমের ছেলের বা’ক-বিত’ণ্ডা হয়েছে। আমি মিটমাট করে নিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নোমান রাহুল জানান, ইউপি চেয়ারম্যান এরকম নোটিশ জা’রি করতে পারেন না। এর মাধ্যমে তিনি মানুষের রুচিশীলতা ও ব্যক্তিস্বাধীনতা ক্ষুণ্ন করেছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*