গ্রামের জলাশয় থেকে ৩ ছোট্ট শিশুর মাছ ধরার ভিডিও তু”মুল ভাইরাল

ভরা বর্ষায় নদনদী ও পুকুরের পানি বেড়ে গিয়ে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। আর সেসব পানিতে ভেসে যায় নানা জাতের দেশীয় মাছ। ভাদ্র মাসের তীব্র গরম আর রোদে

নদীর পানি কমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অনেকটাই শুকিয়ে যায় কিছুদিন আগেও ডুবে থাকা ক্ষেত। পানি শুকিয়ে গেলেও এসব স্থানে আটকে পড়ে বিভিন্ন মাছ। আর সে সময় কাদা-পানিতে নেমে

হাত দিয়ে মাছ শিকার করে গ্রামের মানুষ। ভাদ্র মাসে তাই খালবিল, পুকুর-ডোবা আর ক্ষেতের হাঁটুপানিতে মাছ ধরা চলে। ঘরের থালা-বালতি দিয়ে চলে সামান্য পানি সেচার কাজ। আর পুকুর-ডোবার পানি

সেচা হয় সেচ পাম্প দিয়ে। পুরোপুরি পানিশূন্য হলে তবেই শুরু হয় মাছ ধরার উৎসব। আর ডোবায় মেলে শোল, টাকি, গজাল, পুঁটি, খলসে, ভেদি, কৈ, মাগুর, সিং, ট্যাংরাসহ দেশি প্রজাতির বিভিন্ন মাছ। সেই উৎসবে নারী-পুরুষ, ছেলে-বুড়ো সবাই একসঙ্গে মেতে ওঠে হাত দিয়ে মাছ ধরায়।

হাঁটু কাদা-পানিতে নেমে কে কার আগে বেশি মাছ ধরতে পারে, তা নিয়ে নিজেদের মধ্যে চলে প্রতিযোগিতা। ভিডিওতে আমরা দেখতে পারছি ৩ ছোট্ট শিশুর মাছ ধরার ভিডিও,যা সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে।

সেই ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*