সাড়ে ৬ হাজার ট্রেনযাত্রীকে জরিমানা

বিনা টিকিটে ট্রেন ভ্রমণের দায়ে ৬ হাজার ৬৫৫ ট্রেনযাত্রীকে জরিমানা করেছে পাকশি বিভাগীয় বাণিজ্যিক দপ্তরের ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ সোমবার (১১ অক্টোবর) সকালে

পাকশী বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তার দপ্তর থেকে এ তথ্য জানানো হয়। গত শুক্রবার (১ অক্টোবর) থেকে শনিবার (৯ অক্টোবর) নয় দিনের ব্লক চেকিং করে পাকশি রেলওয়ে বিভাগ আয় করেছে

১৮ লাখ ৩৫ হাজার ৫৭০ টাকা। রেল বিভাগ জানায়, বিনা টিকিটের যাত্রী প্রতিরোধকল্পে গত মাসে পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনকে প্রধান করে বিশেষ টাস্কফোর্স গঠন করে

পাকশী রেল বিভাগ। রোববার (৯ অক্টোবর) পর্যন্ত এ অভিযান চলে।পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ের বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) মো. নাসির উদ্দিনের নেতৃত্বে সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা

(এসিও) সাজেদুল ইসলাম, রেলওয়ে ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) আব্দুল আলিম বিশ্বাস মিঠু, ইয়াসির আরাফাত, হাসিবুর রহমানসহ রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী, রেলওয়ে পুলিশ ট্রেনে

অভিযান পরিচালনা করেন। পাকশী বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, অক্টোবরের প্রথম দিন থেকে শুরু করা হয় টাস্কফোর্সের বিশেষ অভিযান। গুরুত্বপূর্ণ জংশন ও স্টেশনের মধ্যে পাবনার ঈশ্বরদী, কুষ্টিয়ার পোড়াদহ, খুলনা, সান্তাহার ও রাজশাহীতে বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নাসির উদ্দিনের সমন্বয়ে ৯ দিন টাস্কফোর্সের বিশেষ অভিযান চালানো হয়।

এ সময় ৬ হাজার ৬৫৫ জন যাত্রীর কাছ থেকে জরিমানাসহ ভাড়া বাবদ ১৮ লাখ ৩৫ হাজার ৫৭০ টাকা আদায় করা হয়। এদিকে ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরিদর্শকেরা পাকশী বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে ৩০টির অধিক চলন্ত ট্রেনে অভিযান পরিচালনা করেন।

নাসির উদ্দিন বলেন, বিনা টিকিটের যাত্রীদের প্রতিরোধকল্পে পাকশী বিভাগের পক্ষ থেকে বিশেষ টাস্কফোর্স গঠন করা হয়। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু ছাত্রছাত্রীদের রাজশাহীতে যাতায়াত বৃদ্ধি পাওয়ায় বিনা টিকিটের যাত্রী সংখ্যাও বেড়ে যায়। গুরুত্বপূর্ণ জংশন স্টেশনে নয় দিনব্যাপী টাস্কফোর্সের বিশেষ অভিযান পরিচালিত হয়। পাকশি বিভাগীয় সহকারী বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (এসিও) সাজেদুল ইসলাম বাবু জানান,

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুক ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে সহজে যাতায়াত করতে পারে সে জন্য রাজশাহীগামী প্রত্যেক ট্রেনে অতিরিক্ত কোচ সংযোজন করা হয়েছিল। রাজশাহী থেকে আসা ও যাওয়া যাত্রীবাহী আন্তঃনগর পদ্মা, সিল্কসিটি, সাগরদাঁড়ি, কপোতাক্ষ, তিতুমীর এবং বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনের সাপ্তাহিক অফ ডে বাতিল করা হয়েছিল।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*