মাটির ঘর থেকে হটাৎ বেরিয়ে আসল বিশাল আকৃতির বিষধর কোবরা সাপ, ফোঁস করতেই ঘটল বিপত্তি, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় প্রতিদিনই নানারকম ভিডিও ভাইরাল হয়ে থাকে। তার মধ্যে

কোনটি বেশ মজার হয়, কোনটি শিক্ষামূলক, বা কিছু ভিডিও সত্যিই আমাদের অবাক করে দেয়। মানুষের সাথে সাথে পশুপাখিরাও

পিছিয়ে নেই এই দৌড়ে। তাদের মজার ভিডিও আমাদের অত্যন্ত আনন্দ দেয়। কিন্তু

কিছু কিছু ভিডিও সত্যিই দেখলে শিহ’রিত হতে হয়। কিছুদিন আগে ভাইরাল হয়েছিল তিন সা’পের দু’র্ধর্ষ ল’ড়া’ই, যা দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন দর্শক। এছাড়াও

ভাইরাল হয়েছিল নিজের সন্তানদের বাঁচাতে হরিণ মায়ের নিজেকে চিতাবাঘ এদের হাতে সঁপে দেওয়া,মায়ের এই আ’ত্ম’ত্যা’গ কাঁদিয়েছিল গোটা পৃথিবীকে।পশুপাখিদের ও

মানুষের মতোই অনুভূতি আছে, শুধু তারা তাদের অনুভূতি গুলি সকলের সামনে মানুষের মত ব্যক্ত করতে পারে না। তাদের মতো ভালোবাসা পাওয়া সত্যিই দুর্লভ। কিন্তু

সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হবার সব ভিডিও গুলোই কিন্তু ভালোবাসা প্রদর্শন করে না,এর মধ্যে হিং-সা অ-ত্যা-চার ও হ–‘ত্যা-র মতো অনেক ভিডিও কিন্তু

ভাইরাল হয়। পশুপাখিদের সমাজেও একই জিনিস দেখা যায়, পেটের জন্য সবাই কাতর। ক্ষুধা এমন এক প্রবৃত্তি ,যাকে ঠান্ডা করতে আরেক পশুকে ভক্ষণ করেই তবে মাং–সাশী প্রাণীর ক্ষুদা নিবৃত্তি করতে হয়। কিন্তু কথায় আছে “লোভে পাপ, পাপে মৃ–‘ত্যু”।

সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওতে যেন এই কথাটি প্রমাণ দেখলাম আমরা। সর্প জাতি চিরকালই রহস্যময়, কথিত আছে এরা স’ম্মো’হনী শক্তির মাধ্যমে পশুপাখিদের স্বী’কার করে। যদিও বৈজ্ঞানিক মতে তা সত্যি নয় বলেই প্রমাণিত হয়েছে।

এদের মধ্যে ছোট ছোট সাপগুলি ব্যাং, পোকা প্রভৃতি খেয়ে বাঁচলেও বড় সাপেদের অন্যান্য বড় পশু গিলে খেয়ে তবেই খিদে মেটাতে হয়। কিন্তু এও ভুলে গেলে চলবেনা সাপও কিন্তু অন্যান্য পশুর মত একটি অবলা জীব। একমাত্র আত্মরক্ষা বা শিকারের প্রয়োজন পড়লে সাপ কাউকে আ–ক্র-মণ করে।

আমাদের প্রত্যেকের উচিত তাদের প্রতি সংবেদনশীল হওয়া। পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আজও আছেন তারা প্রতিটি পশুপাখির দুঃখ তাদের কষ্টগুলো অনুভব করেন। সম্প্রতি ভাইরাল হলো এমনই একটি ভিডিও। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, সর্প রক্ষক মির্জা মোহাম্মদ আরিফ একটি বাড়িতে গিয়ে দেখেন ঠাকুর ঘরে
একটি বিশাল বড় কোবরা সাপ ফণা তুলে দাঁড়িয়ে রয়েছে।

তাকে ধরার চেষ্টা করলে সে বারবার ছো-বল মা-রতে থাকে। কিন্তু তাকে ধরতে গিয়ে দেখা যায় মাটির মধ্যে আরেকটি সাপ রয়েছে। সে এমনভাবে মাটির মধ্যে মিশে আছে তাকে বোঝাই যাচ্ছে না।
শেষ পর্যন্ত দুটি সাপকেই ধরা সম্ভব হয়।

কিন্তু সাপদুটিকে লোকজন ভয়ের চোটে মা-র-ধ-র করায় তারা যথেষ্ট আ-হ-ত হয়ে পড়ে। মোঃ আরিফ তার জন্য ছেলেগুলোকে খুবই বকাবকি করেন এবং সাপ গুলিকে ভাল করে জল দিয়ে স্নান করিয়ে ক্ষ-ত-স্থা-ন গুলিতে ও-ষুধ দিয়ে পটি করে দেন।

কিন্তু গল্প এখানেই শেষ নয়, তিনি দ্বিতীয় বার ঘরটিতে গিয়ে খোঁ-জাখুঁজি করার সময় দেখেন মাটিতে আরেকটি কো-বরা রয়েছে। শেষ পর্যন্ত তিনটি কোবরা সাপ কে ধরে তিনি নিরা-পদ স্থানে নিয়ে যেতে সক্ষম হন। ভিডিওটি চারিদিকে হয়ে গেছে ভাইরাল।

হাজার হাজার মানুষ ভিডিওটি লাইক করেছে। বিশেষ করে মির্জা মোঃ আরিফ এর প্র-শং-সা-য় প-ঞ্চমুখ সবাই। তার মানবিক রূপটি এই ভিডিওতে সবাইকে করেছে আবেগমথিত। তিনি যেন তাঁর জীবনে এভাবেই এগিয়ে চলেন এই আশাই করি আমরা। পৃথিবীতে এরকম মানুষ আজও আছেন যারা প্রতিটি প্রাণের গুরুত্ব বোঝেন।

তারা প্রত্যেকটি জীবের কষ্ট দুঃখ সবই অনুভব করেন এবং সেগুলি সম্পর্কে যত্ন নেওয়ার চেষ্টা করেন। পৃথিবীতে প্রত্যেকটি জীবের গুরুত্ব অপরিসীম। প্রত্যেকটি মানুষের কাছ থেকেই এরকম মানবিক ব্যবহার কাম্য। তবেই আমাদের পৃথিবী হয়ে উঠবে সুজলা সুফলা শস্য শ্যামলা।

ভিডিও লিংক

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*